রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১১:১৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
আ’লীগ নেতা কাজিম উদ্দিন প্রধানের মৃত্যুতে ভিপি বাদলের শোক আওয়ামী লীগ নেতা কাজিম উদ্দিন প্রধানের মৃত্যু দেশবাসীকে নববর্ষের শুভেচ্ছা জানালেন প্রধানমন্ত্রী নারায়ণগঞ্জ বাসীকে শফিক মাহমুদের ঈদ শুভেচ্ছা আলীরটেক বাসীকে ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মোক্তার হোসেন সকল শ্রেনী পেশার মানুষকে ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মুকিত রহমানের ঈদ শুভেচ্ছা আলীরটেক  ইউনিয়ন সহ নারায়ণগঞ্জ বাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা – শাহীন রাজু প্রিয় বক্তাবলী বাসীসহ নারায়ণগঞ্জ বাসীকে পবিত্র ঈদ-উল-ফিতরের শুভেচ্ছা  – নুরুজ্জামান জিকু পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ নেতা নাজির হোসেন সকলকে পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন সোহেল মাহামুদ

বক্তাবলীতে বিচার সালিস বৈঠকে বাবুকে পিটিয়ে হত্যা, মামলার আসামী ১৬

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ৪ সেপ্টেম্বর, ২০২৩
  • ৪৪৪ 🪪

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার বক্তাবলীর কানাইনগর গ্রামে বেকারির মোড় এলাকায় গত শনিবার সকালে জমি সংক্রান্ত ঘটনা নিয়ে সালিস বৈঠকে দুই পক্ষের সংঘর্ষে আহত হয়েছেন অন্তত ১০/১২ জন। এ ঘটনায় গুরুতর আহত দুইজনকে ঢাকার বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তবে গুরুতর আহত হৃদয় হোসেন বাবু ঢাকার ধানমন্ডি একটি হাসপাতালে লাইফ সাপোর্টে থাকাকালীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। সালিস বৈঠকের সংঘর্ষে একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে সেটাতে দেখা যায়, হালিম বাহিনীর অন্যতম সদস্য আসাদুল্লাহ সাদা পাঞ্জাবি পড়া ও নাজমুল ও সাইফুল বাবুকে প্রকাশে মাটিতে ফেলে দেশিও অস্ত্র দিয়ে মারধর করতে দেখাযায়।

সোমবার (৪ আগস্ট) মৃত্যু ঘটনায় হৃদয় হোসেন বাবুর বড় বোন মৌসমী আক্তার ফতুল্লা মডেলে থানায় ১৬ জনের নাম উল্লেখ্য করে ও আরো ৬ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামি করে মামলা করেন।

মামলার আসামিরা হলেন, ১। আব্দুর রহমান হালিম (৪৫), পিতা- মৃত: আব্দুল গণি মাদবর, ২। আরিফ (৩৪), পিতা- মোতাহার, ৩। আশাদুল্লাহ (৪০), পিতা- মৃত: হাজী আব্দুল কাদির, ৪। রাকিব (৩০), পিতা- মোতাহার, ৫। আলাল (৪০), পিতা- আব্দুল, ৬ । আঃ মোন্নাফ (৫০), পিতা- মৃত: আব্দুল গণি মাদবর, ৭। দেলোয়ার (৩৯), পিতা- আব্দুল, ৮। আলী হোসেন (৩৫), পিতা- শহিদ, ৯। নাজমুল (৩৮), পিতা- আইয়ুব আলী, ১০। আলামিন (৩৮), পিতা- ফকির চাঁন, ১১। রাকায়েত (৩০), পিতা- আঃ মোন্নাফ, ১২। আশিক (৩৩), পিতা- আশাদুল্লাহ, ১৩। মোতালেব (৫৫), পিতা- মৃত: আব্দুল গণি মাদবর, ১৪। সাইফ উল্লাহ (৩৫), পিতা- ফকির চাঁন, ১৫। ফয়সাল (২৫), পিতা- আঃ মালেক, সর্বসাং- কানাইনগর, বক্তাবলী, থানা- ফতুল্লা, জেলা- নারায়ণগঞ্জ, ১৬। আজিজুল (৩৮), পিতা- আব্দুল মজিদ, সাং- চর রাজাপুর, বক্তাবলী।

একদিকে নিহত বাবুর বড় বোন মামলায় উল্ল্যেখ করেন, হাতে বগি, রামদা, চাপাতি, হকিষ্টিক, লোহা কাঠের ডাশা ইত্যাদি সহকারে দেশীয় অস্ত্র-সস্ত্রে সজ্জিত হইয়া ১নং বিবাদী আব্দুর রহমান হালিম আমার ছোট ভাই বাবু (৩০) কে দেখা মাত্র অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে। একপর্যায়ে ১নং বিবাদী আমার ভাইকে খুন করার উদ্দেশ্যে তাহার হাতে থাকা বগি দিয়া মাথায় কোপ মারিয়া মারাত্বক রক্তাক্ত জখম করে। ২নং বিবাদী আরিফ তাহার হাতে থাকা বগি দিয়া আমার ভাইয়ের মাথায় কোপ মারে। আমার ভাই মাটিতে পড়িয়া গেলে ৩নং বিবাদী আশাদুল্লাহ ও ৮নং বিবাদী আলী হোসেন এবং ১৬নং বিবাদী আজিজুল তাহাদের হাতে থাকা চাকু দিয়া বাম চোখে ও মাথায় উপর্যপুরি কোপ মারে। এতে আমার ভাই বাম চোখে ও মাথায় মারাত্বক রক্তাক্ত জখম হয়। ৪, ৫, ৬ ও ৭নং বিবাদীগণ তাহাদের হাতে থাকা বগি দিয়া আমার ভাইয়ের ডান পায়ের হাটু এবং হাটুর নিচে এলোপাথারী কোপাইতে থাকে এবং ৯, ১০, ১১ ও ১২নং বিবাদীগণ তাহাদের হাতে থাকা হকিষ্টিক ও লোহা কাঠের ডাশা দিয়া আমার ভাইয়ের কোমরে পিটাইতে থাকে।

আমার ভাইয়ের আত্ম-চিৎকারে তাহার সাথে থাকা আমার ছোট ভাই মোঃ শরীফ (২৫) এবং আমার মামাতো ভাইয়েরা আগাইয়া আসিলে তাহাদেরকেও খুন করার উদ্দেশ্যে ১ ও ১৩নং বিবাদীদ্বয় আমার মামাতো ভাই সালাউদ্দিনের মাথায়, হাতে ও পায়ে কোপ মারিয়া মারাত্বক রক্তাক্ত জখম করে। ১৪ ও ১৫নং বিবাদীদ্বয় তাহাদের হাতে থাকা রামদা দ্বারা এলোপাথারী ভাবে কোপাইয়া আমার মামাতো ভাই দাদন গাজীর মাথায় মারাত্বক রক্তাক্ত জখম করে।

উক্ত সকল বিবাদীগণ আমার ভাই বাবুকে ম‚মুর্ষ অবস্থায় ফেলাইয়া রাখিয়া চলিয়া যায়। সংবাদ পাইয়া আমি সহ আমার পরিবারের লোকজন ও স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় আমার ভাই বাবুকে এবং অন্যান্য আহত ভাইদেরকে চিকিৎসার জন্য প্রথমে নারায়ণগঞ্জ ভিক্টোরিয়া হাসপাতালে নিয়া গেলে আমার ভাই বাবু এবং অন্যান্য ভাইদের অবস্থা অবনতি হইলে কর্তব্যরত ডাক্তার উন্নতর চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করে। তাহাদেরকে ঢাকা মেডিকেল কলেজে ভর্তি করিলে বাবুর আইসিইউর প্রয়োজন হইলে আমার ভাই বাবুকে ইং- ০৩/০৯/২০২৩ তারিখ ভোর ০৬.০০ ঘটিকার সময় ঢাকা মেডিকেল ০২ দিন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়িয়া চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইং- ০৪/০৯/২০২৩ তারিখ ভোর ০৪.৩৩ মিনিটে উক্ত হাসপাতালে কলেজ হাসপাতাল থেকে ঢাকা ধানমন্ডি একটি হাসপাতাল “হসপিটাল ২৭ প্লাস” আইসিইউতে ভর্তি করি। আমার ভাই বাবু মৃত্যুবরণ করেন। অন্যান্য ভাইয়েরা ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে। আমার ভাইয়ের মৃত্যুর সংবাদ পাইয়া ফতুল্লা থানা পুলিশ উপস্থিত হইয়া লাশের সুরতহাল রিপোর্ট প্রস্তুত করিয়া ময়না তদন্তের জন্য আমার ভাইয়ের লাশ নারায়ণগঞ্জ ভিক্টোরিয়া হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেন। পরে লাশ বাড়িতে এনে এমার নামাজের পরে বাবুকে দাফন দেওয়া হয়। আমি আমার ভাই হত্যার সঠিক বিচার চাই। খুূনিরা যাতে কোন ভাবে মুক্তি না পায় সেজন্য সকলের সহযোগিতা কামনা করছি।

এ বিভাগের আরো সংবাদ
©2020 All rights reserved Daily Narayanganj
Design by: SHAMIR IT
themesba-lates1749691102